313 জন দেখেছেন
"ফ্রিল্যান্স এবং আউটসোর্সিং" বিভাগে করেছেন (488 পয়েন্ট)
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (357 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সেরা উত্তর

সাবস্ক্রাইব বাড়াতে 

  • চ্যানেলের একটি ভালো থিম দিন
  • অসাধারণ কনটেন পোস্ট করুন।
  • আপনার ভিডিওর মান বাড়াতে প্রোডাকশন কোয়ালিটি ভালো করুন।
  • কিছু এভারগ্রিন,অনন্য ভিডিও পোস্ট করুন।
  • আপনার ভিডিওটি যেন দেখতে সুন্দর ও সহজ  হয় তা নিশ্চিত করুন।

ভিউ বাড়াতে 

     প্রথমে আপনাকে কোয়ালিটি সম্পন্ন ভিডিও বানাতে হবেযার সাউন্ড স্পষ্ট হবে এবং গ্রাফিক্সের কাজ হবে প্রফেশনালমানের।কি-ওয়ার্ড গবেষনা: আপনার ভিডিও ইউটিউব এর র্সাচে টপে চলেআসার সবচেয়ে গুরুত্বর্পূণ ভূমিকা হলো সঠিক কি-ওয়ার্ড গবেষনা।তাই সঠিকভাবে কি-ওয়ার্ড গবেষনা করে, কি-ওয়ার্ড নির্বাচন করুন। টাইটেল: ভিডিওতে কি-ওয়ার্ড রিলেটেড টাইটেল ব্যবহারকরবেন, তবে ৫০-৬০ ওয়ার্ডের আকর্ষণীয় টাইটেল লিখবেন।কারন- আপনার ভিডিওর আকর্ষণীয় টাইটেলই ভিউ নিয়ে আসবে।সাবটাইটেল: ভিডিওতে কি-ওয়ার্ড রিলেটেড সাবটাইটেল অবশ্যইব্যবহার করবেন। ডেসক্রিপসান: যতটা পারেন ডেসক্রিপসান বড় করে দিতে চেষ্টাকরবেন। কেননা, ইউটিউব ৫০০০ শব্দের ডেসক্রিপসান দেওয়ার সুযোগ রাখছে সেখানে আপনি ১০০০-১৫০০ শব্দেরডেসক্রিপসান দিতে পারবেন না। দিতেই হবে বলছি না, তবে দিতেচেষ্টা করবেন, এটা আপনার ভিডিও টপে আসতে খুবই সাহয্যকরবে। আর ডেসক্রিপসানে আপনার নির্বাচিত টাইটেল ব্যবহারকরতে ভূলবেন না। ট্যাগ: ভিডিওতে কি-ওয়ার্ড রিলেটেড ৮-১০ ট্যাগ ব্যবহার করবেন,এমনকি টাইটেলও ট্যাগ হিসেবে একবার ব্যবহার করবেন।থাম্বনাইল: কি-ওয়ার্ড রিলেটেড প্রফেশনাল মানের আকর্ষণীয়থাম্বনাইল ব্যবহার করবেন। সময় ঠিক করুন: সব সময় চেষ্টা করবেন নির্ধারিত সময়ে আপনারচ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে। নির্ধারিত সময়ে আপলোডহলে এস. ই. ও এবং ইউজার এ দুটোর জন্যই বেশ ভাল। অ্যানোটেশান: ভিডিও শুরুর ২৫-৩০ সেকেন্ডের মধ্যে একটাঅ্যানোটেশান দিবেন এবং ভিডিওর শেষে আরো ৪-৫অ্যানোটেশান দিয়ে দিবেন। তখন ইউজার আপনার ভিডিও নাকেটে ঐ ভিডিওগুলোতে যাওয়ার একটা সুযোগ থাকে আরএভাবে আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়তে থাকবে। ইন্ট্রো ভিডিও: আপনার চ্যানেলে অবশ্যই একটা ইন্ট্রোভিডিও দিবেন। এটা যেমন আপনার চ্যানেলের অথোরিটিঅর্জনের ক্ষেত্রে সাহায্য করবে ঠিক তেমনি চ্যানেলেরসাবস্ক্রাইভারও বাড়িয়ে দিবে। আর চ্যানেলের সাবস্ক্রাইভার বাড়বেমানে ভিউও বাড়বে। ব্লগিং: আপনার ভিডিওতে ভিউ বাড়ানোর আরেকটা উপায় হলো, কি-ওয়ার্ড রিলেটেড ওয়েবসাইট বা ব্লগসাইট খুলে আপনি আপনারভিডিওটি এম্বেড করে টিউন করুন। তাছাড়াও আপনি কি-ওয়াডরিলেটেড বিভিন্ন টিউন করুন, তাতেও ভিউ বাড়বে। টিউমেন্ট করুন: আপনার ভিডিওর কি-ওয়াড অনুযায়ী টপে থাকাভিডিওগুলোতে টিউমেন্ট করুন, কিন্তু সেখানে স্পাম করবেন না।১-২ লাইনের ভালো টিউমেন্ট করবেন। ইনফর্ম করুন: আপনার ভিউয়ারদের অবশ্যই ইনফর্ম করুন, তারা যেনসম্পন্ন ভিডিওটা দেখে এবং লাইক অথবা ডিজলাইক করে। কারনভিডিওতে যখনই লাইক, ডিজলাইক ও টিউমেন্ট পড়ে তখনই ভিডিওপপুলার হয়, আর এটা ইউটিউব সার্চ এ প্রাধন্য পায়। উত্তর দিন: আপনার ভিডিওতে ভিউয়ারদের দেওয়া টিউমেন্টেরউত্তর যত দ্রুত সম্ভব দিবেন। এতে ভিউয়ারা বোঝবে যে আপনি তাদের প্রতি আন্তরিক, তেমনি ইউটিউব ও বোঝবে যে আপনিভিউয়ারদের প্রাধন্য দেন। সোশ্যাল শেয়ার: ভিডিও ভিউর জন্য সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারসবচেয়ে বেশী গুরুত্বপূর্ন। তাই যত পারেন, সকল সোশ্যালমিডিয়াতে আপনার ভিডি ও শেয়ার করবেন। সবকিছু ঠিকঠাক ভাবে করতে পারলে অবশ্যই আপনার ভিডিওতে ভিউহবে আর না হয়ে যাবে কোথায় ভিউ তো হতেই হবে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1,326 টি প্রশ্ন

1,276 টি উত্তর

204 টি মন্তব্য

381 জন সদস্য

ইপ্রশ্ন ডটকম হল মাতৃভাষায় সহজে সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য অনলাইন মাধ্যম। যেখানে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন ধরনের কৌতুহল মূলক অজানা প্রশ্ন জিজ্ঞাসা ও উত্তর খুজে পাওয়ার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে, নির্বিশেষে সহজে সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলায় দৃড় অঙ্গীকার বদ্ধ।
7 জন অনলাইনে আছেন
0 জন সদস্য 7 জন অতিথি
আজকের মোট ভিজিটর : 1648 জন
গত কালকের মোট ভিজিটর : 2497 জন
মোট ভিজিটর : 178919 জন
...