22 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (1,085 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (1,222 পয়েন্ট)
পেশাব থেকে পবিত্র হওয়া আবশ্যক, হোক সেটা নামাজের আগে কিংবা অন্য কোনো সময়। এখন কারো পেশাব পানি ব্যবহারের দ্বারাই পবিত্র হয়ে যায়, তার পেশাব ঝড়ে না। আবার কারো একটু বসে থাকলে, একটু দাড়ালে, নড়াচড়া করলে অবশিষ্ট পেশাব বের হয়। যার যেভাবে পবিত্র হয়, সে সেইভাবে পবিত্র হবে। কেননা পবিত্র হওয়াটা মাকসাদ।

তবে হ্যাঁ, একটি বিষয় গুরুত্বপূর্ণ রূপে লক্ষ্য করতে হবে যে, পেশাবের ছিটা যেন কিছুতেই শরীরে না পড়ে। তো, কারো যদি পানি ব্যবহার করলেই চলে, তাহলে তাকে ঢিলা ব্যবহারে বাধ্য করার কোন মানে হয় না, তবে ঢিলা ব্যবহার করা সর্বাপেক্ষা উত্তম। আর, বাকি যার ঝড়তে থাকে, তার টিস্যু বা ঢিলা ব্যবহার করতে হবে, যেন পেশাবের ছিটা থেকে পবিত্র থাকা যায়।

"হযরত ঈসাব বিন ইয়াযদাদ আলইয়ামানী তার পিতা থেকে বর্ণনা করেন - রাসূল (সঃ) ইরশাদ করেছেনঃ যখন তোমাদের কেউ পেশাব করে, তখন সে যেন তার লজ্জাস্থানকে তিনবার ঝেড়ে নেয় বা পবিত্র করে নেয়।" (সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং ৩২৬)

ঢিলা ব্যবহারের দিক লক্ষ্য করে অন্য জায়গায় রাসূলে করিম (সঃ) বলেছেনঃ "যে ব্যক্তি ঢিলা ব্যবহার করে সে যেন বেজোড় ব্যবহার করে। আর, যে তা করবে সে উত্তম কাজ করল, আর যে করেনি তাতে কোন সমস্যা নেই।" (সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং ৩৫)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি উত্তর
1 উত্তর
09 মে "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 উত্তর

265 টি প্রশ্ন

214 টি উত্তর

30 টি মন্তব্য

26 জন সদস্য

ই প্রশ্ন ডটকম হল মাতৃভাষায় সহজে সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য অনলাইন মাধ্যম। যেখানে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন ধরনের কৌতুহল মূলক অজানা প্রশ্ন জিজ্ঞাসা ও উত্তর খুজে পাওয়ার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে, নির্বিশেষে সহজে সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলায় দৃড় অঙ্গীকার বদ্ধ।
...